নীলফামারী

এক মায়ের আশা পূরণে আরেক মায়ের পুত্র সন্তান দান

সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধিঃ নীলফামারীর সৈয়দপুরে এক মায়ের আশা পূরণে আরেক মা তার পুত্র সন্তানকে দান করেছেন। এটি ঘটেছে ৩ আগষ্ঠ সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে। সদ্য ভুমিষ্ঠ নবজাতকের পরিবারের পক্ষ থেকে জানতে পারি শহরের নিচু করোনী এলাকার নাদিম হোসেনের স্ত্রী জোসনা বেগম অন্তসত্বা ছিল। তার প্রসব বেদনা উঠলে সকাল ৭ টায় নিয়ে যাওয়া হয় ওই হাসপাতালে। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ভর্তি করে নেন। হাসপাতালের গাইনী ওয়ার্ডে থেকে ওই মহিলা সকাল ৮ টায় এক পুত্র সন্তান জন্ম দেন। পরিবারের পুর্বের প্রতিশ্রæতি মত ওই নবজাতককে তুলে দেয়া হয় একই এলাকার জমিলা বেগমের কাছে। বিনিময় চিকিৎসা খরচ বাবদ ওই পরিবারকে দেয়া হয় ২০ হাজার টাকা। এদিকে ছড়িয়ে পরে হাসপাতালে নবজাতক বিক্রির ঘটনা। এমন খবর থানা পুলিশের কাছে গেলে নবজাতককে উদ্ধারে চেষ্ঠা চালায় থানা পুলিশ। এ বিষয়ে সৈয়দপুর সদর ফাঁড়ির ইনচার্জ আব্দুর রহিম জানান নবজাতক বিক্রির বিষয়টি জানতে পেরে আমরা তা উদ্ধারে চেষ্ঠা চালাই। প্রায় ২ ঘন্টা পর একই এলাকার খায়রুল ইসলামের স্ত্রী লিমা বেগমের কাছ থেকে নবজাতককে উদ্ধার করে ওই সন্তানকে তার মায়ের কোলে ফিরে দেই। নবজাতক বিক্রির বিষয়টি সঠিক নয়।
এ ব্যাপারে নবজাতকের মা জোসনা জানান জমিলা আমার ফুফাতো বোন। তার কোন পুত্র সন্তান না হওয়ায় আমি স্বেচ্ছায় তাকে আমার সন্তান দেই। কিন্তু এখানে ছড়িয়ে পড়েছে আমি সন্তান বিক্রি করেছি।
সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. ওমেদুল হাসান সরকার ও গাইনী বিভাগে কর্তব্যরত ডা. মাসুদা আফরোজ জানান পরিদর্শনের সময় মায়ের কোলে সন্তান ছিল না।
এ ব্যাপারে সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি আবুল হাসনাত খান বলেন ওই নবজাতককে উদ্ধার করে তার মায়ের কাছে দিয়েছি। বিক্রির বিষয়টি সঠিক কী না তা তদন্ত করা হচ্ছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button