নীলফামারী

কিশোরগঞ্জের চাঁদখানায় গাছের চারা উপড়ে নিয়ে গেছে দুবৃর্ত্তরা, থানায় মামলা

কিশোরগঞ্জ(নীলফামারী)সংবাদদাতাঃ-নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার সরঞ্জাবাড়ী মৌজায় নর্থ পোল্ট্রি ফার্মের রোপিত সাড়ে তিনশত বনজ ও ঔষুধী গাছের চারা উপড়ে নিয়ে গেছে দুবৃর্ত্তরা। এঘটনায় সেপ্টেম্বর(রোববার) নর্থ পোল্ট্রি ফার্মের ম্যানেজার মোতওয়াক্কিল বিল্লাহ দুজনের নাম উল্লেখ করে ও ৫/৬ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে থানায় একটি মামলা দায়ের করে।

জানা গেছে, চাঁদখানা ইউনিয়নে নর্থ পোল্ট্রি ফার্মের সরঞ্জাবাড়ী মৌজায় ২৩ একরের বেশী জমি ক্রয় করে। ওই জমির কিছু অংশে তারা ৩৫১টি বনজ ও ঔষুধী গাছের চারা রোপন করে। কিন্তু শনিবার সকালে বাহাগিলী ইউনিয়নের দক্ষিণ বাহাগিলী গ্রামের নমির উদ্দিনের ছেলে আতাউর রহমান আতাসহ তার দলবল গাছের চারাগুলো উপড়ে নিয়ে যায়।

ম্যানেজার মোতওয়াক্কিল বিল্লাহ বলেন, সরঞ্জাবাড়ী মৌজায় কোম্পানির ক্রয়কৃত জমিতে বনজ ও ঔষুধী গাছের চারা রোপন করা হয়েছিল। কিন্তু আতাবাহিনী কোম্পানীর কাছ থেকে ১০লাখ টাকার চাঁদা দাবী করে। তা দিতে অস্বীকার করে কোম্পানী কর্তৃপক্ষ। সেই জের ধরে আতাউর রহমান আতা ও তার দলবল চারাগুলো উপড়ে নিয়ে গেছে। উল্লেখ যে, এর আগেও কোম্পানীর কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে মারপিট করে মটর সাইকেল পুড়িয়ে দিয়েছে ওই আতাবাহিনী। ওই মামলায় হাজতবাস ভোগ করে সম্প্রতি জামিনে মুক্তি নিয়ে আরও বেপরোয়া হয়ে উঠেছে আতাবাহিনী। ওই ঘটনায় প্রিন্ট মিডিয়াসহ বিভিন্ন ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় আতাবাহিনীর বিভিন্ন বে-আইনী কর্মকান্ডের খবর প্রকাশিত হয়েছে।

এলাকার ওলিয়ার রহমান, বাচ্চু মিয়াসহ আরো অনেকে বলেন, আতাবাহিনীর অত্যাচারে এলাকাবাসী অতিষ্ট। তার বিভিন্ন অপরাধের কোর্টে ও থানায় ১০টির বেশী মামলা রয়েছে।
এ ব্যাপারে কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনটার্জ আব্দুল আউয়াল গাছ উপড়ে নিয়ে যাওয়ার বিষয় স্বীকার করে বলেন, থানায় একটি মামলা হয়েছে। আসামী গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button