নীলফামারী

কিশোরগঞ্জে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সরকারি বরাদ্দের টাকা আত্মসাৎ

কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী) প্রতিনিধি:-

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার বগুলাগাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও চাঁদখানা মাঝাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সরকারি বরাদ্দের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। নাম মাত্র কাজ করে প্রধান শিক্ষকদ্বয় বরাদ্দের সিংহভাগ অর্থ আত্মসাৎ করায় বিদ্যালয়ের দৈনন্দিন কার্যক্রম মুখ থুবড়ে পরেছে।

অভিযোগ ও সরজমিন পরিদর্শনে জানা যায়, ২০২০-২১ইং অর্থবছরে বগুলাগাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মেরামত কাজের জন্য ২ লাখ, স্কুল লার্নিং ইমপ্রুভমেন্ট প্রজেক্টে (স্লীপ) ৭০ হাজার, রুটিন মেইনটেন্যান্স (ক্ষুদ্র মেরামত) বাবদ ৪০ হাজার ও প্রাকৃতিক দূর্যোগ মোবাবেলা বাবদ ৫ হাজার টাকা বরাদ্দ দেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।

কিস্তু প্রধান শিক্ষিকা বিলকিস বেগম মেরামত কাজের মধ্যে শুধু দেয়ালে রংয়ের কাজ করেছে। স্লীপ প্রকল্পে লোক দেখানোর জন্য অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র, হ্যান্ড স্যানিটাইজার কিনে বরাদ্দের বড় অংশ আত্মসাৎ করেছেন। রুটিন মেইনটেন্যান্স ও দূর্যোগ মোকাবেলার কোন কাজ তিনি দেখাতে পারেনি। চাঁদখানা মাঝাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বড় ধরনের মেরামত কাজ না থাকলেও রুটিন মেইনটেন্যান্স (ক্ষুদ্র মেরামত) বাবদ ৪০ হাজার, স্লীপ প্রকল্পে ৭০ হাজার ও প্রাকৃতিক দূর্যোগ মোকাবেলা বাবদ ৫ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। এসব বরাদ্দের নাম মাত্র কাজ করে প্রধান শিক্ষক মোজহারুল ইসলাম সমুদয় টাকা আত্মসাৎ করে।
বগুলাগাড়ী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিাকা ও চাঁদখানা মাঝাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সম্পর্কে দুজন স্বামী স্ত্রী। তিনি স্বামীর নির্দেশনায় বিদ্যালয় পরিচালনা করে থাকেন। বিদ্যালয় সংলগ্ন বাসিন্দা ভোলানাথ, মুখেশ চন্দ্র রায় সহ অনেকে অভিযোগ কওে বলেন এই প্রধান শিক্ষকদ্বয় স্বামী-স্ত্রী প্রতি বছর সরকারি বরাদ্দের টাকা আত্মসাৎ করেন।

সংশ্লিষ্ঠ দপ্তরে অভিযোগ দিলে তদন্ত হয়, তদন্তে আত্মসাতের বিষয় প্রমাণও হয় কিন্তু পরে কিভাবে তাঁরা পার পেয়ে যায় জানিনা। চাঁদখানা মাঝাপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোজাহারুল ইসলামের কাছে দৃশ্যমান কি কাজ করেছেন জানতে চাইলে তিনি কোন কাজ দেখাতে পারেন নি।

কিশোরগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শরীফা আখতার বলেন, বিদ্যালয়ের কাজ সম্পূর্ন করা না হলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button