রংপুরস্থানীয়

তারাগঞ্জে বালু উত্তোলনের কারণে তিন কৃষকের ২৭ শতক জমি ও আমনক্ষেত নষ্ট

তারার আলো খবর:- তারাগঞ্জ উপজেলায় বন্যার পানিতে তিন কৃষকের জমি ভেঙ্গে গিয়ে প্রায় ২৭ শতক জমির আমন ক্ষেত নষ্ট হয়ে গেছে। এতে তাদের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে প্রায় লক্ষাধিক টাকা। গভীরভাবে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করা অভিযোগে বন্যার পানিতে এমন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন বলে এক বালু ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ওই তিন কৃষক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ প্রদান করেছেন।

অভিযোগে জানাগেছে, চলতি মৌসুমে আমন ধানের চারা রোপনের সময় বালু ব্যবসায়ী উপজেলার হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের সৈয়দপুর পাইকানপাড়া গ্রামের আব্দুল জব্বার ওরফে বগরু মিয়া তার সৈয়দপুর মৌজায় অবস্থিত ২৬ শতক জমি ৭ থেকে ৮ ফিট গভীর করে মাটি ও বালু কেটে বিক্রি করেন। গত কয়েক দিন আগে বন্যার পানিতে আব্দুল জব্বারের পরিত্যক্ত জমির আইল ভেঙ্গে গিয়ে একই এলাকার কৃষক আব্দুল হালিম, শফিকুল ও লেবু মিয়াসহ তিন কৃষকের প্রায় ২৭ শতক জমি ও আমন ক্ষেত নষ্ট হয়ে যায়।

এতে কৃষকদেরর ক্ষয়ক্ষতি হয় প্রায় লক্ষাধিক টাকা। কৃষক আব্দুল হালিম ও শফিকুল ইসলাম জানান, আব্দুল জব্বার ওরফে বগরু মিয়া একজন মামলাবাজ ও দুর্দান্ত ব্যক্তি হিসেবে এলাকায় পরিচিত। জমির চারিদিকে ৫ফিট করে বাদ না দিয়ে তিনি তার জমির আইল বরাবর জমি কেটে নিয়েছেন। এসময় আমরা গিয়ে বাঁধা নিষেদ করলেও তিনি আমাদেরকে বিভিন্ন হুমকি প্রদান করেছেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন সহকারি(ভুমি) কমিশনারকে তদন্ত করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সত্যতাপেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button