রংপুরস্থানীয়

তারাগঞ্জে স্বাস্থ্য পরিদর্শকের বিরুদ্ধে গণটিকা কেন্দ্রে গুজব ছড়ানোর অভিযোগ

তারার আলো খবর : রংপুরের তারাগঞ্জ স্বাস্থ্য পরিদর্শক আব্দুস ছালামের বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ উঠেছে। তারমধ্যে গণটিকা কেন্দ্রে গুজব ছড়িয়ে টিকা নিতে আসা লোকজনকে ফিরিয়ে দেয়ার অভিযোগ। সম্প্রতি তারাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাারণ সম্পাদক ও হাড়িয়ারকুঠি ইউপি চেয়ারম্যান গণটিকা কেন্দ্রে স্বাস্থ্য পরিদর্শক মিথ্যাচার করে গুজব ছড়িয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও অভিযোগকারীর লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, কোভিড-১৯ প্রতিরোধে সরকারি নির্দেশে সারা দেশের ন্যায় রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলার পাঁচ ইউনিয়নে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আয়োজনে বাস্তবায়ন করা হয় গণটিকা কার্যক্রম। গত ৭ আগস্ট এ কার্যক্রম দেশব্যাপী অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত গণটিকা কার্যক্রম চলাকালিন সকাল প্রায় সাড়ে ১১টার দিকে হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের গণটিকা কেন্দ্রে এক নারী টিকা গ্রহণের পর অসুস্থবোধ করেন। উক্ত কেন্দ্রে দায়িত্বরত স্বাস্থ্যকর্মী নারীর অসুস্থবোধের বিষয়টি উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ও দায়িত্বরত স্বাস্থ্য পরিদর্শক (ইনচার্জ) আব্দুস সালামকে অবহিত করলে উপস্থিত পরিদর্শনে যাওয়া পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ওই নারীর সাথে কথা বলেন এবং পরামর্শ প্রদান করেন। পরবর্তীতে উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ওই নারীর সাথে মুঠোফোনে কথা বলে দায়িত্বরত স্বাস্থ্যকর্মীরেকে রোগীর দেখাশুনার নির্দেশ দেন।

এরই মধ্যে টিকাদান কেন্দ্রে দায়িত্বরত স্বাস্থ্য পরিদর্শক (ইনচার্জ) আব্দুস সালাম মুঠোফোনের মাধ্যমে এ্যাম্বুলেন্স নিয়ে এসে সেখানে টিকা গ্রহণ করে এক নারী গুরুতর অসুস্থ্য হয়েছে বলে গুজব ছড়িয়ে দেন। এতে টিকা নিতে আসা লোকজন টিকা না নিয়ে বাড়িতে ফিরে যেতে শুরু করে। খবর পেয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ওই টিকা কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে এ্যাম্বুলেন্স নিয়ে আসার কারণ জানতে চাইলে আব্দুস সালাম উপস্থিত সকলের সামনে উত্তেজিত হয়ে স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে আপত্তিকর কথা বার্তা বলে। ঘটনার পর ৯ আগস্ট উপজেলা স্বাস্থ্য পরিদর্শক (ইনচার্জ) আব্দুস সালামের বিরুদ্ধে বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) বরাবরে হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নে মিথ্যাচার চালানোর লিখিত অভিযোগ করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও হাড়িয়ারকুঠি ইউপি চেয়ারম্যান হারুন-অর-রশিদ বাবুল। বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডাঃ মোঃ মোতাহারুল ইসলাম অভিযোগের বিষয়ে রংপুর সিভিল সার্জনের নেতৃত্বে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠনের কথা জানালেও অভিযোগের ২৫ দিন অতিবাহিত হলেও কোন ব্যবস্থা না নেওয়ায় উপজেলা জুরে শুরু হয়েছে আলোচনা সমালোচনা।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত স্বাস্থ্য পরিদর্শক আব্দুস সালামের মুঠোফোনে বলেন, টিকা কেন্দ্রে স্বাস্থ্যকর্মীদের একটি টিম কাজ করেছে। সেখানে কি ঘটেছে আমি জানি না। আমার বিরুদ্ধে কি অভিযোগ আনা হয়েছে সে বিষয়েও আমার কিছু জানা নেই।

রংপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ হিরম্ব কুমার রায় বলেন, তারাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও হাড়িয়ারকুঠি ইউপি চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ বাবুলের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে বিভাগীয় পরিচালক স্যারের নির্দেশে ৩ (তিন) সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। যত শীঘ্রই সম্ভব তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়া হবে। তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার কোন নির্দিষ্ট সময় বেধে দেওয়া হয়েছে কি’না জানতে চাইলে তিনি বলেন, কোন সময় বেধে দেওয়া হয়নি। তবে খুব শীঘ্রই তদন্ত করা হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button