রংপুর

তিস্তায় মোক সর্বনাশ করিছে —

[গঙ্গাচড়া:- তিস্তার ভাঙনে নি:স্ব হওয়া আবুল কালাম আজাদ তার পৈত্রিক বসতবাড়ি আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে বলছেন, ওইখানে(ওইস্থানে) মোর তিন সিঁড়ির বাড়ি-ঘর ছিল। তা এখন তিস্তা গর্ভে বিলীন হয়েছে। –ছবি- তারার আলো ]

স্টাফ রিপোর্টার,গঙ্গাচড়া(রংপুর):-“ওই যে দেখছেন না। এখানে তিন সিড়ি থেকে আমাদের বাড়ি ছিল” । স্বাধীনতার আগ থেকে বাপ-দাদার ভিটায় বাড়ি করি আছি। সেই বসত ভিটা এবার চোখের সামনে ভেঙ্গে গেল।

এমন কষ্টের কথা বললেন লক্ষীটারী ইউনিয়নের পশ্চিম ইচলি এলাকার আবুল কালাম আজাদ(৭০)। তিন ছেলে তিন মেয়ে। বসতবাড়িসহ জমি ছিল মোটে ৩(তিন) বিঘা। সউগ শ্যাষ হয়া গেইছে। তিস্তায় মোক সর্বনাশ করিছে। খুব কষ্ট করে কষ্টের বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর)কথাগুলো বলছিল আাবুল কালাম আজাদ।

তিনি আরো বলেন, নদী অনেক দুরে ছিল। ৬০/৭০ বছর আগে থেকে এখানে চর। সেই চরে চাষাবাদ করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছি। সেই চর এ বছর তিস্তায় ভেঙ্গে গেল। চোখের সামনে সব চলে গেল। নিঃস্ব হয়ে গেছি । তিস্তার ভাঙনে নিঃস্ব হওয়া আজাদের সংসারে অভাব-অনটন এখন নিত্যসাথী। বর্তমানে লক্ষীটারী ইউনিয়নের নির্মিত বাঁধে পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস করছে। আবুল কালাম আজাদের মত প্রতি বছরেই তিস্তার ভাঙনে নিঃস্ব হচ্ছে অনেকেই।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button