স্থানীয়

দীর্ঘ ২৫ দিন পরেও করোনা আক্রান্ত উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা

তারার আলো খবর : প্রায় দুই সপ্তাহ হতে চললেও করোনায় আক্রান্ত হয়ে
অসুস্থ্য রয়েছেন রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা
ডা. শামসুন্নাহার তার মেয়ে। বর্তমানে মেয়েসহ তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য
কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে জানা গেছে।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, করোনা উপসর্গ দেখা দেওয়ায় গত ৮
জুলাই তারাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শামসুন্নাহার
ও তার মেয়ে রাজামনি (৪) এর নমুনা সংগ্রহ করে রংপুরে অবস্থিত এন্টিজেন্ট টেস্ট
ল্যাবে পাঠানো হয়। এতে মা ও মেয়ের করোনা পজেটিভ আসে। এরপর দুইজনেরই
শারিরীক অবনতি ঘটলে রংপুর ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে ভর্তি করানো
হয়। সেখানে কয়েকদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর অবস্থা কিছুটা স্বাভাবিক হলে
তাদের হোমআইসোলেশনে রাখা হয়।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে আরো জানা যায়, স্বাস্থ্য কর্মকর্তার শারিরীক
অসুস্থতা থাকা সত্তে¡ও গত রবিবার (১ আগস্ট) রংপুর পিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা
করানো হলে মেয়ে রাজামনির রিপোর্টে করোনা নেগেটিভ দেখা গেলেও পুনঃরায়
করোনা পজেটিভ বলে জানা গেছে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার নমুনা পরীক্ষার
রিপোর্টে। বর্তমানে তিনি তারাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি ও
চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে জানা গেছে।
এবিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ডা. ফিদা তাসকিয়া নোভা
বলেন, স্যারের করোনা পজেটিভ আসার পর তিনি প্রথমে রংপুরের করোনা
ডেডিকেটেড হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। সেখানে কয়েকদিন চিকিৎসাধীন
থাকার পর হোমআইসোলেশনে ছিলেন আরো কয়েকদিন। কিন্তু শারিরীক কোন
উন্নতি না হওয়ায় তিনি উপজেলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন।
দ্বিতীয়বারেও স্যারের রিপোর্ট পজেটিভ আসায় তিনি এখনো উপজেলা স্বাস্থ্য
কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button