রংপুর

পীরগঞ্জে হামলার সাথে জড়িত মূলহোতা সৈকত মন্ডল ছাত্রলীগের নেতা ছিলেন

আমিনুল ইসলাম জুয়েল (রংপুর):-

 রংপুরের পীরগঞ্জের মাঝিপাড়ার সহিংসতার ঘটনায় র‍্যাবের হাতে গ্রেফতার সৈকত মণ্ডল কারমাইকেল কলেজ ছাত্রলীগের দর্শন বিভাগের সহ-সভাপতি ছিলেন। এর আগে তার নিজের ফেসবুকে উস্কানিমূলক স্ট্যাটাস দেয়ার অভিযোগে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়। ঘটনার পরের দিন ১৮ অক্টোবর 

শৃঙ্খলা পরিপন্থী কার্যকলাপে জড়িত থাকার অভিযোগে শৈকত মন্ডলকে ছাত্রলীগের কারমাইকেল কলেজ শাখা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। 

ছাত্রলীগের কারমাইকেল কলেজ শাখার সভাপতি সাইদুজ্জামান সিজার ও সাধারণ সম্পাদক জাবেদ আহমেদ স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সৈকত মণ্ডলের বাবার নাম রাশেদুল ইমলাম।  তিনি কারমাইকেল কলেজের দর্শন বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্র। একই সাথে ছাত্রলীগের দর্শন বিভাগ শাখার সহ-সভাপতি হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।

এর আগেও সাম্প্রদায়িক উস্কানিমূলক পোস্ট দেওয়ায় ক্ষুব্ধ ছিলো সাধারণ নেতা-কর্মীরা।

গ্রেপ্তারের পর শনিবার (২৩ অক্টোবর) র‌্যাব সদর দপ্তরে আয়োজিত ব্রিফিংয়ে র‍্যাবের পক্ষ থেকে সৈকত মণ্ডলকে পীরগঞ্জের মাঝিপাড়ার হিন্দু পল্লীতে সহিংসতার ঘটনায় অন্যতম হোতা হিসাবে দাবি করা হয়।

কারমাইকেল কলেজের সাধারণ শিক্ষার্থী ও সংগঠনের সাধারণ নেতাকর্মীর জানান, দর্শন বিভাগের চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্র সৈকত মণ্ডল আগে থেকেই সাম্প্রদায়িক মনোভাবাপন্ন। আগেও তার ফেসবুক থেকে ধর্মীয় উস্কানিমূলক পোস্ট দেওয়ায় সহপাঠীরা ক্ষুব্ধ ছিলো।

ছাত্রলীগের কামাইকেল কলেজ শাখার সভাপতি সাইদুজ্জামান সিজার বলেন, সৈকত মন্ডল আগে থেকেই ফেসবুকে উস্কানিমূলক পোস্ট দিয়ে আসছিল।

বিষয়টি পীরগঞ্জের ঘটনার আগে আমাদের নজরে আসে। একারনে মহানগর ছাত্রলীগের পরামর্শক্রমে তাকে সংগঠন থেকে বহিস্কার করা হয়। 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button