রংপুরস্থানীয়

প্রতিবন্ধি যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগে ধর্ষক গ্রেপ্তার, ধর্ষিতার বাবা ও ধর্ষক যা বললেন

তারার আলো খবর:-
তারাগঞ্জ উপজেলার ইকরচালী ইউনিয়নের বরাতী চরকডাঙ্গা বাজারপাড়া গ্রামে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক প্রতিবন্ধি যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগে এক ধর্ষককে গ্রেপ্তার করেছে তারাগঞ্জ থানা পুলিশ। ওই ধর্ষণের ঘটনায় প্রতিবন্ধি ওই নারী ৭ (সাত) মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে অভিযোগে জানা গেছে।

এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ ধর্ষক শহিদুল ইসলাম (৪০) কে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন। সে ইকরচালী ইউনিয়নের জুম্মা পাড়া গ্রামের মৃত আজিজুল ইসলামের পুত্র।

ওই প্রতিবন্ধির বাবা ওমর আলী সাংবাদিকদের জানান, আমি গরিব মানুষ আমার স্ত্রী প্রতিবন্ধি, আমার কন্যাও প্রতিবন্ধি। এ সুযোগে আমার পার্শ্ববর্তী মাঝাপাড়া (জুম্মাপাড়া) গ্রামের মৃত আজিজুল ইসলামের পুত্র শহিদুল ইসলাম (৪০) আমার প্রতিবন্ধি কন্যা রুমি আক্তার (২৮)কে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে বিয়ে করার প্রলোভন দেখিয়ে তার আবাদকৃত নেপিয়ার ঘাঁস ক্ষেতে জোরপূবর্ক ধর্ষণ করেছে। ওই ধর্ষণের ঘটনায় এখন আমার মেয়ে ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা।

অভিযুক্ত গ্রেপ্তারকৃত শহিদুল ইসলাম থানায় সাংবাদিকদের বলেন, ওই নারীকে আমি ধর্ষণ করি নাই। তারা স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহলের দেয়া পরামর্শ মতো আমাকে ষড়যন্ত্র মূলক ধর্ষণের মামলায় ফাঁসানো হয়েছে।

তারাগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ফারুক আহম্মেদ বলেন, প্রতিবন্ধিকে ধর্ষণের ঘটনায় একটি ধর্ষণ মামলা হয়েছে। শহিদুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে রংপুর জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button