রংপুর

বদরগঞ্জের তিন ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে মসজিদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

বি. আই. বাধন, বদরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি: রংপুরের বদরগঞ্জে মসজিদের অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য টিআর প্রকল্পের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। ভুয়া মসজিদ কমিটি ও জাল সীল তৈরি করে সরকারি অর্থ উত্তোলন করে তা নিজেদের মধ্যে তা ভাগাভাগির চেষ্টা চালান তিন ইউপি সদস্য। এতে মসজিদের সভাপতি ১সেপ্টেম্বর (বুধবার) ইউএনও’র দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযোগ সুত্রে, বদরগঞ্জ উপজেলার ৬নং রাধানগর ইউনিয়নের দিলালপুর বিন্ধিরধর জামে মসজিদে ২০২০-২১ অর্থবছরে টেস্ট রিলিফ (টিআর) প্রকল্পের মাধ্যমে ৪৬ হাজার ২৫০ টাকা উন্নয়ন বরাদ্দ দেওয়া হয়। বরাদ্দের কথা মসজিদ কমিটির কাউকে না জানিয়ে সেই টাকা আত্মসাৎ করার চেষ্টা চালায় স্থানীয় তিনজন ইউপি সদস্য। এতে ৬নং রাধানগর ইউনিয়নের ইউপি সদস্য আজহার আলি (২নং ওয়ার্ড), শামছুল হক (৩নং ওয়ার্ড), শচীন চন্দ্র (১নং ওয়ার্ড) জড়িত বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।
অভিযোগে আরো জানা যায়, বরাদ্দের বিষয়টি মসজিদ কমিটি জানতে পারলে তখন মসজিদে ২০ হাজার টাকা দিতে রাজি হন ইউপি সদস্য। এর মধ্যে ১৭ হাজার ৩ শ’ টাকা উত্তোলনের প্রায় চারমাস পর ইউপি সদস্য আজহার আলি মসজিদ কমিটির সভাপতি আলহাজ্জ মোস্তাফিজুরকে দেন। মসজিদ কমিটির সাথে আলোচনা ছাড়া সভাপতি মোস্তাফিজুর সেই টাকায় হাত দিবেন না বলে জানিয়ে স্থান ত্যাগ করেন। তখন মোস্তাফিজুরের বাঁশের আটালে (টং) আজহার আলি টাকা ফেলে যান। পরে ফেলে যাওয়া সেই টাকা ইমরান নামে আজহারের এক অনুসারি মসজিদে গিয়ে রেখে আসেন। সেই টাকা কিছুদিন ধরে মসজিদেই ছিল। তবে গত বুধবার প্রায় ১১টায় ইউপি সদস্য আজহার পিআইও অফিসের কার্যকারি আবু সাঈদ ও মশিয়ারকে সাথে নিয়ে মুয়াজ্জিন আ: হামিদকে সেই টাকা মসজিদ থেকে বের করে দিতে বলেন। মসজিদ কমিটির অনুমতি ব্যতিত টাকা বের করতে রাজি না হওয়ায় আজহার মুয়াজ্জিনকে হুমকি-ধামকি দেন। পরে ভয়ে মুয়াজ্জিন টাকা বের করে দেন। সরকারি বরাদ্দের সেই টাকা ফেরত নিয়ে বর্তমানে পিআইও অফিসে জমা রাখা হয়েছে।
অভিযোগকারি মসজিদ সভাপতি আলহাজ্জ মোস্তাফিজুর বলেন, ‘অনেক ধরাধরি করি ২০ হাজার টাকা দিতে চায় মেম্বার। ওরা তিন মেম্বার মিলে বাকি টাকা নাকি ভাগ করি নিবে। মসজিদে ১৭ হাজার ৩ শ’ টাকা দিছিলো তাও আমাদের কাউকে না জানিয়ে বের করি নিয়া গেইছে।’
মসজিদের মুসাল্লি আব্দুল জালিল জানান, আজহার মেম্বারকে টাকার কথা বলায় ওনি মসজিদেই অশ্লীল ভাষায় সাবেক সম্পাদককে গালিগালাজ করছে। আর বলে এই ২০ হাজার টাকাও না দিলে আপনারা কি করতে পারবেন?
এবিষয়ে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য আজহার আলি বলেন, ‘ওরা সবাই মিথ্যা বলছে। সামনে আমার নির্বাচন, তাই তারা এমন মিথ্যা ছড়াচ্ছে। আমি প্রয়োজনে ওদের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করবো।’
এবিষয়ে বদরগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শ্রী বাবুল চন্দ্র রায়ের কথা হলে তিনি জানান, দিলালপুর বিন্দিরধার জামে মসজিদে ২০২০-২১ অর্থবছরে টেস্ট রিলিফ (টিআর) প্রকল্পের মাধ্যমে ৪৬ হাজার ২৫০ টাকা উন্নয়ন বরাদ্দ দেওয়া হয়। তবে কেউ যদি এই টাকা আত্মসাৎ করে তাহলে মসজিদ কমিটির লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবো।
মুঠোফোনে উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) রেহেনুমা তারান্নুম জানান, এবিষয়ে অবগত আছি, তদন্ত সাপেক্ষে খুব দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button