রংপুর

মসজিদের টাকায় মেম্বারের দুর্নীতি

বি. আই. বাধন, বদরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি:
রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার এক ইউপি সদস্যের (মেম্বার) বিরুদ্ধে মসজিদের অনুদানের টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ তুলেছে মুসাল্লিরা। উপজেলার ৬নং রাধানগর ইউনিয়নের ২নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আজহার আলি ওই ইউনিয়নের শামছুল ও শচিন মেম্বারের সহযোগিতায় এ টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে জানান মুসাল্লিরা।

বদরগঞ্জ উপজেলার ৬নং রাধানগর ইউনিয়নের দিলালপুর বিন্দিরধার জামে মসজিদে ২০২০-২১ অর্থবছরে টেস্ট রিলিফ (টিআর) প্রকল্পের মাধ্যমে ৪৬ হাজার ২৫০ টাকা উন্নয়ন বরাদ্দ দেওয়া হয়। কিন্তু মসজিদ কমিটিকে সেই টাকা না দিয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য আজহার আলি নানা রকম টাল-বাহনা চালাচ্ছেন। এমনকি টাকার সঠিক পরিমাণও জানাচ্ছেন না। মসজিদ কমিটিকে বাদ দিয়ে ইউপি সদস্যের পছন্দের লোক নিয়ে নতুন কমিটি বানিয়ে উপজেলা প্রকল্প বাস্তাবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে টাকা উত্তোলন করেন। মাত্র ২০ হাজার টাকা মসজিদে দিতে রাজি হন ইউপি সদস্য আজহার আলি। আর বাকি টাকার কথা বললে তিনি বলেন, আমরা তিন মেম্বার মিলে বাকি টাকা ভাগ করে নিবো।

মসজিদের মুসাল্লি আব্দুল জলিল জানান, আজহার মেম্বার আমাদেরকে বলছে মসজিদের নামে নাকি সরকারি ৪৬ হাজার টাকা আসছে। কখনও বলে ৪৩ হাজার, আবার কখনও বলে ৩৮ হাজার। তার মধ্যে ওনি মসজিদে ২০ হাজার টাকা মসজিদে দিবে, আর বাকি টাকা আরো দুই মেম্বারসহ ভাগ করে নিতে চায়। তখন আমরা বলি, সব টাকাই মসজিদে দিবেন, মসজিদের টাকা মেম্বাররা নিবেন কেন? তখন মেম্বার বলেন, আমি তো এই টাকা এখানে না দিয়ে অন্য মসজিদে দিতে পারতাম, তখন তো এই ২০ হাজার টাকাও পাইতেন না।

মসজিদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আজহার আলি সরকার বলেন, ‘নামাজ শেষে মসজিদে বসে আমি মেম্বারকে দেখে সরকারি অনুদানের টাকার প্রসঙ্গ তুলি। অনুদানের সব টাকাই মসজিদে দিতে বললে মেম্বার রেগে যান। এক পর্যায়ে মসজিদেই আমাকে নোংরা ভাষায় গালি দেয়। মসজিদ ঘরে ঠুকে মসজিদের টাকা খাওয়া মেম্বারের এমন ভাষা শুনে আমি অবাক হয়ে যাই। ওই দিন আর কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।’

মসজিদের সভাপতি বলেন, ‘ওরা সব টাকা দিতে চায় না। মেম্বার বলে, শাসছুল ও শচিন সহ তারা ৩ মেম্বার মিলে বাকি টাকা ভাগ করি নিবে। অনেকদিন ধরাধরি করি অবশেষে ৪ মাস পর সেইদিন আমাক (সভাপতিকে) ২০ হাজার দিতে চায়, আমি নেই নাই। পরে সেক্রেটারিকে দিছে। আরো টাকা লাগলে তখন মেম্বারকে বলতে বলছে।’

তবে সব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে ইউপি সদস্য আজহার আলি বলেন, ‘ওরা সবাই মিথ্যা বলছে। সামনে আমার নির্বাচন, তাই তারা এমন মিথ্যা ছড়াচ্ছে। আমি প্রয়োজনে ওদের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করবো।’

এবিষয়ে বদরগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শ্রী বাবুল চন্দ্র রায়ের কথা হলে তিনি জানান, দিলালপুর বিন্দিরধার জামে মসজিদে ২০২০-২১ অর্থবছরে টেস্ট রিলিফ (টিআর) প্রকল্পের মাধ্যমে ৪৬ হাজার ২৫০ টাকা উন্নয়ন বরাদ্দ দেওয়া হয়। তবে কেউ যদি এই টাকা আত্মসাৎ করে তাহলে মসজিদ কমিটির লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবো।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button