রংপুর

মাথা গোঁজার ঠাই নাই তোফাজ্জল দম্পতির

স্টাফ রিপোর্টার,গংগাচড়া: মাথা গোঁজার ঠাই নাই তোফাজ্জল(৮০) দম্পতির। মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরলেও আশ্রয় পায়নি ।উপজেলার কোলকোন্দ ইউনিয়নের বিনবিনা এলাকায় বাড়ি ছিল তোফাজ্জলের। বসতবাড়িসহ তার জমি ছিল মাত্র ২৬ শতক । সম্প্রতি ঈদের পরদিন তি¯তার ভাঙ্গনে তার বসতবাড়িসহ জায়গাজমি তি¯তায় বিলীন হয়। নিঃস্ব হয় তোফাজ্জল। কোথায় যাবে এমন ভাবনায় ঘুম আসেনা তার। এমনিতে খাওয়ার কষ্ট তার উপর থাকার কষ্ট। এ অবস্থায় মাথায় বাঁজ পড়ে তোফাজ্জলের। পার্শ্ববর্তী লালমনিরহাট জেলার কাকিনা ইউনিয়নের সরকারি একটি পুকুর পাড়ে ঘরটি তুললেও সেখানে বাধা দেয় ঘর তোলার জন্য।সেখানেও ঠাই হলোনা তোফাজ্জলের।বেশ কিছুদিন এভাবে কাটে তার।অবশেষে কাকিনা ইউনিয়নের মহিষমুড়ি এলাকার রফিকুলের ঘরের বারান্দায় অস্থায়ী ঠাই হয় তোফাজ্জল দম্পতির। সেখানে তার স্ত্রী আন্জুমাসহ ২ ছেলে মেয়ে থাকছে । তোফাজ্জলের ২ ছেলে ২ মেয়ে। অভাবের কারনে এক ছেলে এক মেয়ে রংপুরে অন্যের বাসায় কাজ করে।
এলাকার রফিকুল ইসলাম বলেন, তার খুব কষ্ট। নদী ভাঙ্গনের দিন তার ঘর আনার টাকাও ছিল না। নৌকা ভাড়ার টাকাও হাওলাত দিয়েছি। কবে যে পরিশোধ করে দিবে সে টাকা। কোথাও ঘর তোলার জায়গা না পাওয়ার কারনে এখন আপাতত ঘরের বারান্দায় থাকার জায়গা দিয়েছে রফিকুল।
সংশ্লিষ্ঠ ইউপি সদস্য নুরন্নবী সবুজ বলেন, তার অবস্থা খুবেই খারাপ। অনেকে অন্যের জমিতে বাড়ি করলেও সে জায়গাও পায়নি।
কোলকোন্দ ইউপি চেয়ারম্যান সোহরাব আলী রাজু বলেন, বিষয়টি আমি জানি। একটি উঁচু জায়গা দেখার জন্য মেম্বারকে বলেছি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button