জাতীয়বিনোদন

যে কারণে আত্মগোপনে ছিলেন চিত্রনায়িকা পপি

তারার আলো অনলাইন ডেস্ক:-

করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ঘ সময় শুটিংয়ের বিরতি দিয়েছিলেন চিত্রনায়িকা সাদিকা পারভিন পপি। তিনি নিজেও হয়েছিলেন আক্রান্ত।

সুস্থ হয়ে উঠলেও ২০২১ সালের শুরু থেকেই মিডিয়া সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন জনপ্রিয় এ নায়িকা। তার এই অন্তর্ধানে নানা ধরনের গুঞ্জনের উদয় হয়।

মিডিয়াপাড়ায় চাউর হয় বিয়ে করে সংসারি হয়েছেন পপি। কেউ কেউ তুলে ধরেন চিত্রনায়িকা আত্মগোপনে আছেন।

এক কথায় তার এ হাটাৎ নিরুদ্দেশ হওয়ার খবরটি নিয়ে মিডিয়াপাড়া সহ তার ভক্তদের মধ্যে বেশ আলোচনা সমলোচনার জন্ম দেয়। সবার মধ্যে আগ্রহ দেখা দেয় সঠিকটি জানার। কিন্তু বেশ কিছুদিন পর তা নিশ্চিত হওয়া গেলো।

এর কিছু দিন পর শোনা যায়, মা হয়েছেন চিত্রনায়িকা পপি। তবে কন্যা নাকি পুত্রসন্তানের মা হয়েছেন তিনি, সে বিষয় নিয়ে ধোঁয়াশার সৃষ্টি হয়েছে।

পপি কন্যাসন্তান জন্ম দিয়েছেন বলে খবর প্রকাশ করেছে বেশ কিছু গণমাধ্যম।

কিন্তু পপির পারিবারিক ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছে, পপি পুত্রসন্তানেরই মা হয়েছেন। আর সেই সন্তান জন্ম নিয়েছে গত নভেম্বর মাসে।

পপির পরিবারের ঘনিষ্ঠ ওই ব্যক্তির দাবি, বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে পপি কন্যাসন্তানের মা হয়েছেন বলে যে তথ্য প্রকাশিত হয়েছে, তা সঠিক নয়। আমরা পারিবারিকভাবে জেনেছি, তিনি পুত্রসন্তান জন্ম দিয়েছেন। গত বছরের ১০ নভেম্বর ফুটফুটে একে ছেলের জন্ম দিয়েছেন পপি। পপির স্বামী পুরান ঢাকার একজন ব্যবসায়ী। একসময় তিনি মালয়েশিয়ায় ছিলেন।

এর আগে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক পরিচালক জানিয়েছিলেন, ‘আমিও জেনেছি পপি মা হয়েছেন। বর্তমানে মা-ছেলে দুজনই ভালো আছেন। যতদূর জানি ডাক্তারের দেওয়া নির্ধারিত তারিখের আগেই সন্তান জন্ম দিয়েছেন তিনি।’

কিন্তু বিয়ে ও মা হওয়া নিয়ে গণমাধ্যমের কাছে এখন পর্যন্ত কোনো বক্তব্যই দেননি পপি। তাই এই নীরবতা কবে ভাঙবে তা নিয়ে পপির ঘনিষ্ঠরা বলছেন অন্য কথা। তারা বলছেন সংসার জীবন আরেকটু গুছিয়ে নিয়ে সবাইকে সুখবরটি দেবেন এ চিত্রনায়িকা।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৭ সালে মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ‘কুলি’ সিনেমার মাধ্যমে নায়িকা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন পপি। প্রথম সিনেমাতেই বাজিমাত করেন তিনি। এর পর অসংখ্য দর্শকপ্রিয় ও সফল সিনেমা উপহার দিয়েছেন এ নায়িকা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button