রংপুর

রংপুরে দুই গৃহবধু ও এক যুবকের লাশ উদ্ধার

রংপুর প্রতিনিধি :- রংপুর মহা নগর থেকে দুই গৃহবধু ও এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। পৃথক তিনটি স্থান থেকে লাশ উদ্ধার করেছেন মেট্রোপলিটন পুলিশ। মেট্রোপলিটন হারাগাছ থানা এলাকায় সৎ বাজার এলাকা থেকে এক গৃহবধু ও কাচনা মধ্যপাড়া এলাকা থেকে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নগরীর মেট্রোপলিটন কোতয়ালী সাতগাড়া এলাকা থেকে আরেকজন গৃহবধুর লাশ করা হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসি সূত্রে জানাগেছে, হারাগাছ আঠারো দোন সৎবাজার এলাকার ফেরি করে বাদাম বিক্রেতা ফয়জার রহমানের স্ত্রী তিন সন্তানের জননী সকিনা বেগম (৩৫)কে গত বৃহস্পতিবার সকালে নিজ ঘরে পরিবারের লোকজন গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। অপর ঘটনা ঘটে একই থানায় কাচনা মধ্যপাড়া তকেয়ার সরকার পাড়া গ্রামে। ওই গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের পুত্র রাজু মিয়া (২৮) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। তিনি পেশায় থাই এ্যলুমোনিয়ামের মিস্ত্রী ছিলেন।

হারাগাছ থানার ওসি শওকত আলী সরকার জানান, সকিনা বেগমের লাশ নিয়ে সন্দেহ দেখা দিলে ময়না তদন্তের জন্য রমেক মর্গে পাঠানো হয়েছে। রাজুর আত্মহত্যার বিষয়টি নিয়ে সন্দেহ না থাকায় পরিবারে কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। এদিকে নগরীর রামপুরা সাতগাড়া এলাকা থেকে সুলতানা সুমি (৩৫) নামে এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সুলতানা সুমি ওই এলাকার এএসএম বখতিয়ার রহমান তুষারের স্ত্রী। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে সুমি মারা গেছেন এখবর প্রচার করে লাশ দাফনের জন্য গোসল করার সময় এলাকাবাসির কাছে মৃত্যুটি রহস্যজনক মনে হলে তারা পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রমেক মর্গে পাঠিয়েছেন।

মেট্রোপলিটন কোতয়ালি থানার ওসি (তদন্ত) রাজিব বসুনিয়া লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ওই গৃহবধুর লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। আপাতত এর বেশি কিছু বলা যাচ্ছেনা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button