রংপুরস্থানীয়

শুধুমাত্র একটি কেন্দ্রে টিকা প্রদান তারাগঞ্জে টিকা গ্রহনে শিক্ষার্থীদের উপচে পড়া ভিড়

[ তারাগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টিকা গ্রহন করতে এসে দীর্ঘক্ষন লাইনে দাঁড়িয়ে শিক্ষাথীরা- ছবি-তারার আলো ]

তারার আলো খবর:
স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের টিকা প্রদানে উদ্যোগ নিয়েছেন বাংলাদেশ সরকার। চলতি জানুয়ারী মাসে টিকা গ্রহনের এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

এরই ধারাবাহিকতায় তারাগঞ্জ উপজেলার স্বাস্থ্য বিভাগ গত ৬ জানুয়ারী থেকে এ টিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু করেছেন। শিক্ষার্থীদের টিকা প্রদান কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে আগামী ১৫ জানুয়ারী পর্যন্ত।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সেলিনা বেগম জানান, উপজেলার ৩২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১২ হাজার ৪৭৯ জন শিক্ষার্থীকে করোনার টিকা প্রদান করা হবে। উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সুত্র জানিয়েছেন. উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কেন্দ্রে, গতকাল মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) পর্যন্ত ৭ হাজার ১৬৪জন শিক্ষার্থীকে টিকা প্রদান করা হয়েছে।

তবে টিকাদান কেন্দ্র শুধুমাত্র একটি কেন্দ্র হওয়ায় টিকা নিতে আসা শিক্ষার্থীদের পড়তে হচ্ছে দুর্ভোগে। গতকাল মঙ্গলবার টিকাদান কেন্দ্র উপজেলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মাঠে গিয়ে প্রতিবেদক দেখতে পায়. সেখানে টিকা নিতে আসা প্রায় তিন শতাধিক শিক্ষার্থীর উপচে পড়া ভিড়।

শুধুমাত্র একটি কেন্দ্র হওয়ায় টিকা নিতে আসা শিক্ষার্থীদের বেশ কয়েকটি লাইনে দাঁড়িয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করতে হচ্ছে। এতে পড়তে হচ্ছে তাদের দুর্ভোগে।

এসময় শিক্ষার্থীদের অনেকের সাথে কথা প্রতিবেদকের। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান, শুধুমাত্র একটি কেন্দ্র হওয়ায় টিকা নিতে এসে আমাদেরকে পড়তে হচ্ছে চরম ভোগান্তিতে।

তারাগঞ্জ সরকারী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আলতাব হোসেন বলেন,আমার বিদ্যালয়ের আশে পাশে বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এখানে যদি একটি কেন্দ্র হতো তাহলে শিক্ষার্থীদের যাতায়াতে যেমনি অতিরিক্ত টাকা খরচ হতো না তেমনি তাদেরকে ভোগান্তিতে পড়তে হতো না।

স্বাস্থ্য সুরক্ষা পেতে আমার প্রতিষ্ঠানের ৮৪০জন শিক্ষার্থীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কেন্দ্রে নিয়ে গিয়ে টিকা প্রদান করা হয়েছে।

তারাগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টিকা গ্রহন করতে এসে দীর্ঘক্ষন লাইনে দাঁড়িয়ে শিক্ষাথীরা- ছবি-তারার আলো

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: নীল রতন দেব জানান, টিকার কেন্দ্র বাড়ালে শিক্ষার্থীদের বিড়ম্বনায় পড়তে হতো না। কিন্তু টিকা রাখতে এসি রুমের প্রয়োজন হওয়ায় শুধুমাত্র উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেই শিক্ষার্থীদের টিকা প্রদান করা হচ্ছে।

নবাগত উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রাসেল মিয়া জানান, শুধু শিক্ষার্থীকে নয়, সরকার দেশের সকল মানুষকে টিকার আওতায় নিয়ে আসার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button