রংপুরস্থানীয়

সবাই খুশি হলেও দুশ্চিন্তায় মোত্তাকীনা
অর্থের কাছে কি হেরে যাবে মেধা?

বি. আই. বাধন, বদরগঞ্জ (রংপুর) :
ছোট বেলায় অনেকের স্বপ্ন থাকে ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়র কিংবা শিক্ষক হওয়ার। সে লক্ষ্যে চলার পথে জীবনের কঠিন বাস্তবতায় হারিয়ে যায় অনেকের স্বপ্ন। ভর্তিনামক যুদ্ধে পরাজিত হয় অনেকে।

কিন্তু ভর্তি যুদ্ধে জয়ী হলেও অর্থের কাছে হেরে যাচ্ছে মোত্তাকীনা। দেশের সেরা বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পেয়েও দুশ্চিন্তায় মোত্তাকীনা।

রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার গোপালপুর সিঙ্গিপাড়ার আতিয়ার রহমানের মেয়ে মোত্তাকিনা। স্থানীয় গোপালপুর শেখেরহাট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০১৯ সালে এইচএসসিতে উত্তম ফলাফল নিয়ে উত্তীর্ণ হন। এরপর ভর্তি হন বদরগঞ্জ সরকারি কলেজে। সেখান থেকে এইচএসসিতে জিপিএ-৫ অর্জন করেন। এরপর কলেজের বন্ধুদের সাথে সেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে।

ভর্তি ফলাফলে দেখা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘বি’ ইউনিটে মোত্তাকিনাকে পড়ার সুযোগ দিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। এ সংবাদে মোত্তাকিনার পরিবার ও স্বজন-শুভাকাঙ্খীরা খুব খুশি হয়েছেন।

কিন্তু দুশ্চিন্তার অন্ত নাই মোত্তাকিনার। জীবনের লক্ষ্য পূরণের এমন সুযোগ পেয়েও লাভ হবে না তার। কারণ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ানোর সামর্থ্য নাই তার কৃষক বাবার। এজন্য সারাদিন দুশ্চিন্তা আর বিষন্নতায় ভুগছেন সে।

মেধাবী মোত্তাকীনা বলেন, অনেকে প্রাণপণ চেষ্টা করেও ভর্তি যুদ্ধে টেকে না, আর আমি ভর্তি যুদ্ধে উত্তীর্ণ হয়েও অর্থের অভাবে পড়তে পারব না।

আমাদের এমপি, ইউএনও মহোদয় সহযোগিতা করলে আমার হয়তো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ হতো।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button