রংপুরস্থানীয়

সুযোগ পেয়েও অর্থাভাবে বেরোবিতে ভর্তি হতে পারছে না শাহীন ভবিষ্যত অনিশ্চিত

তারার আলো খবর :

স্নাতকে ভর্তির সুয়োগ পেয়েও অর্থাভাবে রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) ভর্তি হতে পারছে না এক মেধাবী ছাত্র।

ফলে অঙ্কুরেই বিনষ্ট হতে চলেছে এক উজ্জ্বল নক্ষত্রের। মেধাবী ওই ছাত্র রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার শাহীন আলম। সে উপজেলার বুজরুক বাগবাড় গ্রামের ভ্যানচালক তাছির উদ্দিনের পুত্র।

শাহীন আলমের সাথে কথা বলে জানা যায়, মেধাবী এই শিক্ষার্থী ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে বেরোবি’র সি-ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষায় ৬৮তম মেধাক্রমে উত্তীর্ণ হয়েছে। আগামী ৯ থেকে ১১ই জানুয়ারি পর্যন্ত ভর্তি কার্যক্রমে ভর্তি হতে তার প্রয়োজন ১০ হাজার টাকা। কিন্তু তাকে বর্তমানে ১০ হাজার টাকা দেওয়ার কোন সামর্থ্যই নেই তার দরিদ্র বাবার।

শাহীন জানান, চার ভাই ও এক বোনের পড়াশুনার খরচ বহন করেন তার ভ্যান চালক বাবা। করোনাকালে বোনের বিয়ে হলেও তিন ভাই পড়াশুনা করছেন তারা। কিন্তু তিন জনের পড়াশুনার জন্য এতো খরচ চালানো সম্ভব হয়ে উঠছে না তার বাবার।

বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ও পড়াশুনার খরচ চালানোর মতো সামর্থ্য নেই তার বাবার। ইতোমধ্যে তাদের পড়াশুনার খরচ চালাতে একটি এনজিও থেকে ঋণ নিয়েছেন তার বাবা। সেই ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতেই হিমসিম খাচ্ছেন তিনি।

এমতাবস্থায় ছেলেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য ১০ হাজার টাকা ও বিশ্ববিদ্যালয়ে থেকে পড়াশুনার খরচ দেওয়ার মতো সামর্থ্য একেবারেই নেই তার ভ্যান চালক বাবা তাছির উদ্দিনের।

তাই সে সমাজের সামর্থ্যবানদের কাছে কান্নাজড়িত কন্ঠে সাহায্যের অনুরোধ জানান। যদি কেউ তাকে সহযোগীতা করতে চায় তবে তার ব্যবহৃত ০১৭৯৬-৯৪৫৪৩১ নম্বরের মুঠোফোনে যোগাযোগের অনুরোধ জানায় শাহীন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button