নীলফামারী

সৈয়দপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস উদযাপন

স্টাফ রিপোর্টার, সৈয়দপুর (নীলফামারী) :
১৬ ডিসেম্বর সারাদেশের মতো নীলফামারীর সৈয়দপুরেও যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস – ২০২২ উদযাপন করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে সৈয়দপুর উপজেলা প্রশাসন উদ্যোগে শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা প্রদান ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য রাবেয়া আলীম এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোখছেদুল মোমিন।

সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফয়সাল রায়হানের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. ইউনুছ আলী, শহীদ পরিবারের সদস্য সাবেক অধ্যক্ষ সাখাওয়াৎ হোসেন খোকন ও মহসিনুল হক মহসিন প্রমূখ। পরে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও বীরাঙ্গাদের হাতে উপহার সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। এর আগে সকাল নয়টায় শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়।

পরে শান্তির প্রতীক কবুতর উড়িয়ে বিজয় দিবসের কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়েছে। এরপর সেখানে পুলিশ,আনসার, ভিডিপি,বিএনসিসি,ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন শিক্ষা ও সামাজিক প্রতিষ্ঠান,স্কাউটস্ ,রোভার স্কাউটস, গার্ল গাইডস্, শিশু-কিশোর সংগঠন কর্তৃক বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজ ও ডিসপ্লে এবং ক্রীড়া অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

নীলফামারী – ৪ (সৈয়দপুর- কিশোরগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মো. আদেলুর রহমান আদেল প্রধান অতিথি হিসেবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন এবং অভিবাদন গ্রহন করেন। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে মহিলা সংসদ রাবেয়া আলীম, সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোখছেদুল মোমিন, সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফয়সাল রায়হান, সহকারি কমিশনার (ভূমি) আমিনুল ইসলাম, সৈয়দপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সারোআর আলম, ওসি সাইফুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে সৈয়দপুর উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত দিনব্যাপী অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে ছিল গুরুত্তপূর্ণ সরকারি ,আধা-সরকারি, স্বায়ত্বশাসিত এবং বেসরকারি ভবনসমূহে আলোকসজ্জা, জাতীয় পতাকা উত্তোলন, ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে মহান বিজয় দিবসের শুভ সূচনা,শহীদদের আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শহীদ মিনারে ও শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ,সিনেমা হলে শিক্ষার্র্থীদের বিনামূল্যে মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক চলচ্চিত্র প্রদর্শনী,

হাসপাতাল ও এতিমখানায় উন্নতমানের খাবার পরিবেশন, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদক বিরোধী কার্যক্রমে জনমত সৃষ্টির জন্য আলোচনা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা, যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সুস্বাস্থ্য এবং জাতির শান্তি,

সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি কামনা করেন সকল মসজিদ,মন্দির গীর্জা,প্যাগোডা ও অন্যান্য উপাসনালয়ে বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা, মহিলাদের অংশগ্রহনে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক আলোচনা সভা ও ক্রীড়ানুষ্ঠান, প্রীতি ফুটবল ম্যাচ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button