নীলফামারী

সৈয়দপুরে দিনের বেলা মোটরসাইকেল চুরি,বিক্রি করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা চোর

( ফাইল ছবি)

স্টাফ রিপোর্টার,সৈয়দপুর :
নীলফামারীর সৈয়দপুরে পল্লীর এক বাড়ি থেকে দিনের বেলা চুরি যাওয়া একটি মোটরসাইকেলসহ এক চোরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত মোটরসাইকেল চোর মো. নুরুল হক ওরফে চামড়া (২০)। সে উপজেলার খাতামধুপুর ইউনিয়নের কাছারীপাড়ার আব্দুল করিম ওরফে ঢেপার ছেলে।

মামলার আর্জি সূত্রে জানা গেছে, সৈয়দপুর উপজেলার ৫ নম্বর খাতামধুপুর ইউনিয়নের খালিশা বেলপুকুর খালিশা গ্রামের মৃত. মজির উদ্দিনের ছেলে মো. মশিউর রহমান। তিনি পার্শ¦বর্তী কিশোরগঞ্জ উপজেলার নয়ানখাল ডাঙ্গারহাট স্কুল এন্ড কলেজের সহকারি শিক্ষক। তিনি ঘটনার দিন গত সোমবার বিকেল আনুমানিক ৪টার দিকে কলেজ থেকে ফিরে তাঁর ব্যবহৃত ১০০ সিসির সিটি বাজাজ কোম্পানি লাল রঙের মোটরসাইকেল বাড়ির খুলিবাড়িতে (উঠান) হ্যান্ডেল লক করে রাখেন। এরপর তিনি বাড়ির পাশে মসজিদে আছরের নামাজ আদায় করতে যান।

পরবর্তীতে নামাজ শেষে বাড়ি ফিরে দেখেন বাড়ির খুলিবাড়িতে রক্ষিত স্থানে তাঁর ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি নেই। এরপর তাঁর মোটরসাইকেলটি খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে জানতে পারেন সৈয়দপুর থানায় একটি চোরাই মোটরসাইকেল আটক করা হয়েছে। পরে তিনি থানায় গিয়ে তাঁর ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি সনাক্ত করেন।

তবে একটি বিশ্বস্ত সূত্র জানায়, মোটরসাইকেল চোর নুরুল হক ওরফে চামড়া (২০) স্কুল শিক্ষক মশিউর রহমানের বাড়ির খুলিবাড়ি থেকে সুকৌশলে মোটরসাইকেলটির লক খুলে চুরি করে নিয়ে এসে সৈয়দপুর শহরের একটি ভাঙ্গারির দোকানে বিক্রির চেষ্টা করে। এ সময় তার কথাবার্তা দোকান মালিকের মনে চরম সন্দেহের উদ্রেক হয়। তিনি মোটরসাইকেল চোরকে তার দোকানে বসিয়ে রেখে থানা পুলিশকে খবর দেন। পরে সৈয়দপুর পুলিশ ওই দোকানে গিয়ে নুরুল হক ওরফে চামড়াকে মোটরসাইকেল বিক্রির বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে মোটরসাইকেলটি চুরি করে নিয়ে আসার কথা স্বীকার করে।

এ ঘটনায় মোটরসাইকেল মালিক মো. মশিউর রহমান নিজে বাদী হয়ে নুরুল হক ওরফে চামড়াকে (২০) আসামী করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-১৭ তারিখ:১৯/১০/২০২১ইং।

সৈয়দপুর থানায় অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মো. খায়রুল আনাম একটি চুরি যাওয়া মোটরসাইকেলসহ এক চোরকে গ্রেপ্তারের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, এ ঘটনায় মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর)থানায় একটি মামলা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত আসামীকে মঙ্গলবার সকালে আদালতের মাধ্যমে নীলফামারী কারাগারে পাঠানো হয়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button