নীলফামারী

সৈয়দপুরে মুসলিম এইড ইউকে বাংলাদেশের উদ্যোগে শীত ও কোভিড প্রতিরোধক উপকরণ সামগ্রী এবং অর্থ বিতরণ

স্টাফ রিপোর্টার, সৈয়দপুর (নীলফামারী):
নীলফামারীর সৈয়দপুরে তিন শ’ ৬৫ জন অসহায়, সুস্থ ও দরিদ্র মানুষের মাঝে শীত ও কোভিড -১৯ প্রতিরোধক উপকরণ সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ করেছে বেসরকারি আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা মুসলিম এইড ইউকে বাংলাদেশ।

গতকাল মঙ্গলবার ও গত সোমবার দুই দিনে উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়ন ও পৌরসভা এলাকার উল্লিখিত মানুষের মধ্যে ওই উপকরণ সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ করা হয়।

সর্বশেষ গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলা বোতলাগাড়ী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত উপকরণ সামগ্রী ও অর্থ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. মোখছেদুল মোমিন।

বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা মুসলিম এইড ইউকে বাংলাদেশের সৈয়দপুর টেকনিক্যাল এন্ড ভোকেশনাল ট্রেনিং সেন্টারের প্রিন্সিপাল মো. রিপন মিঞার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সংস্থার হিউম্যানিটোরিয়ান কো-অর্ডিনেটর খন্দকার আব্দুল কাদের রাজু এবং পার্টনারশীপ ও কমপ্লেইনস্ বিভাগের সিনিয়র অফিসার মো. শাহ অলিউল্ল্যাহ্, সৈয়দপুর ফিল্ড অফিসের এডমিশন/ ফ্রন্ট ডেক্স অফিসার মো. আখতারুজ্জামান হেলালসহ মাঠকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকালে উপজেলার কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরেও অসহায়, দুস্থ ও দরিদ্র মানুষের মাঝে বিভিন্ন উপকরণ সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ করা হয়। এ অনুষ্ঠানেও প্রধান অতিথি ছিলেন সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোখছেদুল মোমিন। এ সময় কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) নুরন নবী সরকার, ইউপি সচিব মো. ফেরেজুল শাহ্,নবনির্বাচিত ওয়ার্ড সদস্য আব্দুল হক, কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম নজু প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

সংস্থার সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গতকাল ১১ জানুয়ারী ও গত ১০ জানুয়ারী দুইদিনে সৈয়দপুর উপজেলার পাঁচটি ইউননিয়ন ও পৌর এলাকার তিন শ’ ৬৫ জন অসহায়, দুস্থ ও দরিদ্র মানুষের মাঝে বিভিন্ন উপকরণ সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ করা হয়।

বিতরণকৃত উপকরণ সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে, একটি কম্বল, এক কেজি ডিটারজেন্ট পাউডার, পাঁচটি তিব্বত প্রসাধনী সাবান, এক জোড়া মোজা, একটি মাঙ্কী টুপি, একটি ভ্যাসলিন, দুই প্যাকেট স্যানিটারী ন্যাপকিন (সেনোরা), ১০টি মাস্ক ও একটি সোয়েটার।

এছাড়াও ৩ শ’ ৬৫ জন অসহায়, দুস্থ ও দরিদ্র ব্যক্তির প্রত্যেককে নগদ তিন হাজার টাকা করে প্রদান করা হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button