স্থানীয়

সড়ক কেঁটে ফেলায় দুর্ভোগে শতাধিক পরিবার

স্টাফ রিপোর্টার(কিশোরগঞ্জ)ঃ নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নের মেলাবর শিয়ালডাঙ্গা গ্রামে যাতায়াতের সড়ক কেঁটে ফেলায় চরম দুর্ভোগের স্বীকার হচ্ছে শতাধিক মানুষ। ফলে যাতায়াতের একমাত্র রাস্তাটি বন্ধ হওয়ায় সীমাহীন দুর্ভোগে পরেছে তারা।
অভিযোগ ও সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, মেলাবর শিয়ালডাঙ্গা গ্রামের শতাধিক পরিবারের একমাত্র রাস্তা মেলাবর টটুয়ার ডাঙ্গা হতে অবিলের বাজার পর্যন্ত। এই রাস্তায় তারা যুগযুগ ধরে যাতায়াত করে আসছে। কিন্তু মেলাবর গ্রামের আব্দুস সামাদের ছেলে ভূমিখাদক ভুট্টু মিয়া রাস্তাটি কেঁটে একটি আইল পরিমান অবশিষ্ট রেখেছে। এতে করে ৪’শর বেশি মানুষ সীমাহীন দুর্ভোগে পরেছে। তারা ভ্যান অটোরিক্সা নিয়ে বাড়িতে যেতে পারছে না। ভ্যান অটোরিক্সা রাস্তার ওপারে অন্যের বাড়িতে রেখে আসতে হচ্ছে। কৃষকরা তাদের উৎপাদিত ফসল মাথায় করে বাড়িতে উঠাতে বাধ্য হচ্ছে।
ভুক্তভোগী সুব্রত রায়,নরেন্দ্র,মহেশ চন্দ্র ও প্রিয়নাথসহ অনেকে অভিযোগ করে বলেন, যুগযুগ ধরে আমাদের পূর্বপুরুষেরা ওই রাস্তায় চলাচল করতো এরপর আমরাও করছিলাম। কিন্তু ছয়মাস আগে ভুট্টু মিয়া রাস্তাটি কেটেঁ ফেলে একটি আইল পরিমান অবশিষ্ট রেখেছে। এতে আমাদের শতাধিক পরিবারে দুর্ভোগের শেষ নেই। ভ্যান অটোরিক্সা নিয়ে বাড়িতে যেতে পারছি না। এসব অন্যের বাড়িতে রেখে আসতে হচ্ছে। এই ব্যাপারে আমরা ৫জানুয়ারী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর আবেদন করেছি। কিন্তু অদ্যাবধি তিনি কোন ব্যবস্থা নেননি।

এব্যাপারে ভুট্টু মিয়ার সাথে কথা বললে তিনি বলেন, ওই সম্পত্তি আমার বাবা দলিলমূলে ক্রয় করেছে। আমার আবাদী জমি দিয়ে রাস্তা দিতে পারিনা। হিন্দু বসতির উত্তর দক্ষিণে একটি বিলুপ্ত রেকর্ডিয় রাস্তা রয়েছে। তারা সেই রাস্তা বের করে চলাচল করতে পারে।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রাকিবুজ্জামান বলেন, আমি নতুন এসেছি। কাগজ না দেখে কিছু বলতে পারছিনা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button