রংপুরস্থানীয়

হত্যা নাকি স্বাভাবিক মৃত্যু, ৪ সন্তানের জননীর লাশ উদ্ধার

তারার আলো খবর: রংপুরের তারাগঞ্জে ৪ সন্তানের এক জননীর লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। বুধবার (৮সেপ্টেম্বর) উপজেলার হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের ঝাঁকুয়াপাড়া গ্রাম থেকে ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।

জানাগেছে, ওই নারীর নাম তাসলিমা আক্তার শিল্পী (৩৫)। তিনি উপজেলার হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের ঝাকুয়াপাড়া গ্রামের মোস্তাকিনের স্ত্রী। ওই নারীর তামিম নামের একটি ৪ মাসের ছেলে সন্তানসহ মোসাদ্দেকা (১৬), মোশরেফা (১৪), জান্নাতুল মাওয়া (১২) নামের চার সন্তানের জননী। এলাকাবাসী জানিয়েছেন, শিল্পী বেগম মানসিক রোগে দীর্ঘদিন থেকে ভোগ করে আসলেও স্বামী মোস্তাকিন কাঠ ব্যবসায়ী হওয়ায় ওই দম্পতির দিনকাল খুব ভালোভাবেই চলছিলো। গত ৪ আগষ্ট শিল্পীর মানসিক রোগ চাপ দিলে রংপুরের একটি ক্লিনিকে চিকিৎসা সেবা গ্রহন করে সুস্থ হয়ে তাকে তার পরিবারের লোকজন বাড়িতে নিয়ে আসেন।

গত মঙ্গলবার রাত ১২টার আগে ঘুমাতে যাওয়ার সময় শিল্পী বেগম স্বামী ও সন্তানদের সাথে কথা বললেও পরের দিন সকালে তার পরিবারের লোকজন তাকে বিছানায় মৃত অবস্থায় দেখতে পায়। মৃত্যুর খবরটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে সেখানে লোকজন দেখতে ভিড় জমায়। এ খবর থানা পুলিশের নিকট পৌঁছলে তারাগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ফারুক আহম্মেদ এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ সেখানে গিয়ে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট করে বুধবার ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন।

তবে সে মারা গেছে, নাকি তাকে মেরে ফেলা (হত্যা করা ) হয়েছে এ নিয়ে এলাকায় নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। তারাগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ফারুক আহাম্মেদ লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button