রংপুরস্থানীয়

হাড়িয়ারকুঠিতে অগ্নিকান্ড, হামার গরু পোড়া যায় নাই, হামার কলিজা পোড়া গেইছে

তারার আলো খবর : রংপুরের তারাগঞ্জে এক কৃষকের একটি গোয়াল ঘরে এক অগ্নিকান্ডে দুই কৃষকের ৪টি গরু আগুনে দগ্ধ হয়েছে। এতে ওই গোয়াল ঘরটি ভস্মিভূত এবং দুইটি গরু আগুনে দগ্ধ হয়ে মৃত্যু ও দুইটি গরু অগ্নিদগ্ধ হয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে।

ঘটনাটি তারাগঞ্জ উপজেলার হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের ডাঙ্গীরহাট চাপড়াপাড় গ্রামের কৃষক মতিয়ার রহমানের বাড়িতে সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত আনুমানিক ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এতে কৃষক মতিয়ার রহমানের দুইটি গরু ও তার ছেলে কৃষক আশরাফুল রহমানের দুইটি গরু অগ্নিদগ্ধ হয়।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, সোমবার দিবাগত রাত আনুমানিক ১০টার দিকে মতিয়ার রহমানের গোয়াল ঘরে আগুনের সূত্রপাত হয়। তবে কিভাবে আগুনের সূত্রপাত তা কেউ জানে না। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার ও প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবী, গোয়াল ঘরে জ্বালানো কয়েল অথবা বৈদ্যুতিক কারনে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে।

এ ঘটনায় হতদরিদ্র কৃষক মতিয়ার রহমানের ঢেউটিন দ্বারা নির্মিত গোয়াল ঘরটি ভস্মিভূত হয়। গোয়াল ঘরে থাকা মতিয়ার রহমানের আনুমানিক ৭০ হাজার টাকা মূল্যের দুইটি গরু ও তার ছেলে আশরাফুল ইসলাম আশরাফের ৯০ হাজার টাকা মূল্যের দুইটি গরু অগ্নিদগ্ধ হয়। এলাকাবাসীর প্রচেষ্টায় আগুন নিভানো সম্ভব হলেও আগুন নিয়ন্ত্রনে আসার আগেই দুইটি গরুর মৃত্যু হয় এবং অপর দুইটি গরু আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক আশরাফুল ইসলাম চোখের পানি মুছতে মুছতে এ প্রতিবেককে বলেন, ভাইজান, মোর সউক শেষ হয়া গেল। মাত্র দুইটা গরু আছিলো মোর। ওই দুইটা গরুই আছিলো মোর শেষ সম্বল। মোর গরু দুইটাও গেল মোর বাপের গরু দুইটাও গেল। হামার দুই বাপ-বেটার গরু পোড়া যায় নাই, হামার কলিজা পোড়া গেইছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button