রংপুরস্থানীয়

তারাগঞ্জের হাড়িয়ারকুঠিতে ঝড়ে সড়কের ওপর পড়ে থাকা বটগাছটি একমাসেও সরানো হয়নি

তারার আলো খবর:-
রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলার হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের উজিয়াল মৌজার মধ্যপাড়া বালারডাঙ্গা নামক স্থানে একমাস আগে প্রচন্ড ঝড়ে একটি বট গাছ সড়কের ওপর পড়েছে। একমাস অতিবাহিত হলেও সড়কের ওপর পড়ে থাকা গাছটি সরানো হয়নি।

সড়কটি জেলা পরিষদের হওয়ায় ঝরে পড়া গাছ সরানোর দায়িত্বও পড়ে রংপুর জেলা পরিষদের।

জানাগেছে,গাছ সড়কের মধ্যে পড়ে থাকা খবরটি জেলা পরিষদে জানানো হলেও গতকাল শুক্রবার পর্যন্ত গাছটি সরানো হয়নি বলে জানিয়েছেন হাড়িয়ারকুঠি ইউপি চেযারম্যান কুমারেশ রায়। তিনি আরও বলেন, সড়কের ধারে পড়ে থাকা গাছটি হঠাৎ চোখের সামনে দেখলে ভঁয়ে আঁতকে যান পথচারীরা।

গত বৃহস্পতিবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,এটি একটি বট গাছ। স্থানীয়রা জানান, গত একমাস আগে কালবৈশাখী ঝড়ে এ বট গাছটি সড়কের ওপর পড়ে যায়। এরপর থেকেই ব্যস্ততম সড়কে গাছটি দেখলে মনে হয় যেন শুয়ে আছে সড়কে। আর এতে করে যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটছে। উপজেলার হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের উজিয়াল মধ্যপাড়া গ্রামের ওই ব্যস্ততম সড়কে গেলে চোখে পড়ে এই দৃশ্য। গত প্রায় একমাস ধরে এভাবেই গাছটি পড়ে থাকলেও সরানোর কোনো উদ্যোগই কেউ নেননি বলে জানান স্থানীয়রা।

যে কোন সময় দুর্ঘটনার আশংকা করেন স্থানীয়রা। গাছটি কে সরাবে এনিয়ে এলাকাবাসীর মনে প্রশ্নের শেষ নেই। সরকারী সড়কের গাছ তাই কেউ ভয়ে এগিয়ে আসে না।

স্থানীয় যান চালকদের পড়ে থাকা গাছটি নিত্যদিনের বিষয় হলেও বিপত্তিতে পড়তে হয় অপরিচিত যান চালকদের। বিশেষ করে দ্রুত গতির মটরসাইকেলে প্রায়দিনই ঘটছে ছোট-ঘাট সড়ক দুর্ঘটনা।
হাড়িয়ারকুঠি ইউপি চেয়ারম্যান কুমারেশ রায় জানান, রংপুর জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিষয়টি লিখিতভাবে জানানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে রংপুর জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো: নাজমুল হুদা মোঠোফোনে জানান,গত বৃহস্পতিবার বিকেলে এ বিষয়ে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সড়ক থেকে ঝড়ে পড়া গাছটি অপসারণের আবেদন করেছেন। খুব দ্রুত সড়ক থেকে গাছ অপসারণের ব্যবস্থা করা হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button